Logo

চার দেশে অর্থ পাচার করত সাহেদ: র‍্যাব

Bartha 24 / ৯২ বার দেখা
আপডেট : রবিবার, ২৬ জুলাই, ২০২০

সা’হেদের উ’ত্তরা রিজেন্ট অফিস থেকে উদ্ধার’কৃত পাস’পোর্টে চার দেশের ভিসা ছিল। র‍্যাব বলছে, ওই চার দেশে সাহে’দের অর্থ পাচা’রের তথ্য পে’য়েছে।

রোববার (২৬ জুলাই ) র‍্যাব সদর দফতরে ব্রিফিং করে গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানান র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, আগামীকাল ঢাকা কারাগার থেকে সাহেদকে খুলনায় ৬ দফতরে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে অস্ত্র মামলার রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে সেটির কার্যক্রম পরিচালিত হবে। তবে তার কার্যালয় থেকে যে পাসপোর্ট জব্দ করা হয়েছে। সেটিতে চারটি দেশের ভিসা লাগানো ছিল। সাহেদ ওই চারটি দেশেই যাতায়াত করেছেন এবং সেখানেই অর্থ পাচার করেছেন বলে তথ্য পেয়েছি।

এদিকে সাহেদের অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের চার মামলার রিমান্ড শুনানির পর আদালত ২৮ দিনের এবং তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানটির এমডি মাসুদ পারভেজের তিন মামলায় ২১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন বিচারক।

সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সাহেদ ও মাসুদকে আদালতে হাজির করে হাজতখানায় রাখা হয়। এরপর দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রিমান্ড শুনানির জন্য আদালতে ওঠানো হয়। সাহেদের চার মামলায় ১০ দিন করে ৪০ দিন এবং মাসুদের তিন মামলায় ১০ দিন করে ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু ও সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর আজাদ রহমান ও হেমায়ত উদ্দিন খান হিরন রিমান্ডের পক্ষে এবং আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট নাজমুল হোসেন, শাহ আলম ও মনিরুজ্জামান রিমান্ড বাতিল করে জামিন চেয়ে শুনানি করেন।

শুনানির একপর্যায়ে সাহেদ আদালতের অনুমতি নিয়ে কথা বলেন।

তিনি বিচারককে বলেন, ‘আমি তো অন্যায় করেছি। সব অপরাধের সাথে আমি জড়িত। যারা আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে, তাদের সব টাকা-পয়সা পরিশোধ করে দেবো।

সাহেদ বলেন, গত ১২-১৩ দিন ধরে আমি কী অবস্থার মধ্যে আছি। আমি আর পারতেছি না। প্রেশারের মধ্যে আছি। আমি অসুস্থ।’

এ সময় ঈদের পর রিমান্ড শুনানির তারিখ ধার্য করার প্রার্থনা জানান সাহেদ।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীর সাহেদের বিরোধিতা করে বলেন, বিনা টাকায় করোনা পরীক্ষা করার কথা থাকলেও আসামি রোগীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করেছে। সে একজন মহাপ্রতারক। অসুস্থ না হয়েও গত ১৬ জুলাই আদালতে সে নিজেকে করোনা রোগী দাবি করে। পুলিশ তার যে রিমান্ড চেয়েছে আমরা তা মঞ্জুরের প্রার্থনা করছি।

এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে সাহেদের চার মামলায় সাত দিন করে ২৮ দিন এবং মাসুদের তিন মামলায় সাত দিন করে ২১ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

Bartha News


এই বিভাগের আরও খবর

বিজ্ঞাপন

Theme Created By ThemesDealer.Com