Logo

শাহেদ র‍্যাব কার্যালয়ে বসেও হুমকি দিয়ে যা বললেন

Somoy TV / ১৩২ বার দেখা
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০

এবার র‍্যাব অফিসে বসে র‌্যাব কর্মকর্তাদেরই হুমকি দিলেন তিনি।  বললেন, ‘আমার সঙ্গে আপনাদের আবারও দেখা হবে। হয়তো ছয় মাস পর দেখা হয়ে যেতে পারে। আপনাদের প্রমোশন পোস্টিং যাই হোক না কেন, আমি কিন্তু দেখা করব। কথাটা মনে রাখবেন।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য দিয়ে বলছে, ঢাকার র‌্যাব কার্যালয়ে প্রতারক শাহেদকে নিয়ে আসার পর কর্মকর্তারা তাকে জেরা করছিলেন। ঠিক তখনই সবাইকে অবাক করে দিয়ে র‌্যাব কর্মকর্তাদের উদ্দেশে এমন ঔদ্ধত্যপূর্ণ কথা বলেন।

করোনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে বুধবার (১৫ জুলাই) ভোরে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদ করিমকে সাতক্ষীরা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এসময় তার কাছ থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

ভোর ৫টা ১০ মিনিটে সাতক্ষীরার সীমান্তের দেবহাটা থানার সাকড় বাজারের পাশে অবস্থিত লবঙ্গপতি এলাকা থেকে বোরকা পরে নৌকায় পালিয়ে থাকা অবস্থায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। চুলে কালো রং লাগিয়ে, গোফ কেটে নিজেকে পাল্টে ফেলেন শাহেদ। বোরকা পরে একটি নৌকায় করে ইছামতী নদী দিয়ে পালাচ্ছিলেন।

গ্রেফতারের পর সকাল ৮টা ১০ মিনিটে সাতক্ষীরা স্টেডিয়াম থেকে হেলিকপ্টারে করে শাহেদকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেয় র‌্যাবের দলটি।

এদিকে  শাহেদ করিম ওরফে মো.শাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। একই সঙ্গে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদের প্রতারণার অন্যতম সহযোগী গ্রুপটির এমডি মাসুদ পারভেজকেও ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। এছাড়া শাহেদের প্রধান সহযোগী তরিকুলের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) বেলা ১১টায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) মোহাম্মদ জসিম এ রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। এর কিছুক্ষণ আগে ডিবি কার্যালয় থেকে শাহেদকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসিম এ আদেশ দেন।

করোনা পরীক্ষা না করেই সার্টিফিকেট দেয়াসহ নানা প্রতারণার অভিযোগে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. শাহেদ করিমকে প্রধান আসামি করে ১৭ জনের নামে গত ৭ জুলাই উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে র‌্যাব। সেই মামলায় মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।  এ মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন আট আসামি।

এর আগে গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালায় র‌্যাব। পরীক্ষা ছাড়াই করোনার সনদ দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা ও অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল তারা। র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে অন্তত ৬ হাজার ভুয়া করোনা পরীক্ষার সনদ পাওয়ার প্রমাণ মেলে।

এর পরদিন ৭ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশে র‌্যাব রিজেন্ট হাসপাতাল ও তার মূল কার্যালয় সিলগালা করে দেয়। একই সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে ওই দিনই উত্তরা পশ্চিম থানায় নিয়মিত মামলা করে র‌্যাব।

এরপর গত ১৩ জুলাই অর্থ আত্মসাতের পৃথক দুই মামলায় শাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

এদিকে সাতক্ষীরায় শাহেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করেছে র‌্যাব। সাতক্ষীরার দেবহাটা থানায় শাহেদ করিমসহ তিন জনকে আসামি করে বুধবার রাতে মামলাটি করেন সাতক্ষীরা র‌্যাব ক্যাম্পের ডিএডি নজরুল ইসলাম।

সূত্র: সময় টিভি


এই বিভাগের আরও খবর

বিজ্ঞাপন

Theme Created By ThemesDealer.Com